কুড়িগ্রামের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি ঘটেছে:পানিবন্দি আড়াই লাখ মানুষ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুড়িগ্রামের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি ঘটেছে। পানিবন্দি আড়াই লাখ মানুষ অনেক ভোগান্তিতে পরেছে। দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানির সংকট। এইদিকে ধরলা, ব্রহ্মপুত্র ও তিস্তা সহ মোট ১৬ টি নদীর পানি বেড়ে গেছে। নিম্নাঞ্চলের মানুষ বেশি বিপদে পরেছে, তাদের ঘরবাড়ি পানিতে ডুবে গেছে তারা উঁচু রাস্তায় অবস্থান নিয়েছে। পানিতে নলকুপ ডুবে যাওয়ায় দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানির সংকট। এছাড়াও ল্যাট্রিন ডুবে যাওয়ায় বিপাকে পরেছে জলমগ্ন মানুষ। বন্যার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় জেলায় প্রায় তিন শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সেই এলাকার ছেলে মেয়েদের লেখাপড়ার অনেক ক্ষতি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন অভিভাবকরা।

কুড়িগ্রাম জেলায় মোট ৭৩ ইউনিয়ন এর মধ্যে ৬০ ইউনিয়ন এর প্রায় ৩০০ টি গ্রামের আড়াই লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়েছে। জেলায় ৭৭টি অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্রে ৩ হাজার ৮০০ জন মানুষ আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছেন।

ধরলা, ব্রহ্মপুত্র ও তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার উপরে উঠে গেছে বলে জানিয়েছেন কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ড। কোন কোন স্থানে ১০৫ সেন্টিমিটার পর্যন্ত পানি প্রবাহিত হচ্ছে। দেড় হাজার এর মত ফসলী জমি পানিতে ডুবে গিয়েছে। প্রতিদিন আরও অনেক এলাকায় জমি পানির তলে ডুবে যাচ্ছে। এই অবস্থা অব্যাহত থাকার কারনে কৃষকরা অনেক খতির সম্মুখীন হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *