বাটলার যখন ফাইনালের নায়ক!

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ক্রিকেট খেলার ফিনিশিং বলতে আমরা জানতাম ধোনিকে। যে কিনা খুব ঠাণ্ডা মাথায় ম্যাচ কে বের করে নিয়ে আসতে পারতেন। তবে সময়ের সাথে সাথে ধোনিসহ সবাইকে ছাড়িয়ে যাচ্ছেন জস বাটলার। বাটলার শেষটা করে যেতে পারেনি ঠিকই কিন্তু মাথা ঠাণ্ডা রেখে খেলার উপাধি অর্জন করে নিয়েছেন।

ফাইনালে ৮৬ রানে চার উইকেট হারানোর পর বাটলার ও স্টোকস যেভাবে ইংল্যান্ডের রানটাকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন তা অনেকদিন মনে রাখবে ক্রিকেট বিশ্ব। বাটলার-স্টোকস জুটিতে এসেছে ১১০ রান। এই জুটিই ম্যাচে ফেরায় ইংল্যান্ডকে। ৬০ বলে ৫৯ রান করে বাটলার ফিরে যান লকি ফার্গুসনের বলে। এই সময়ে মোটামুটি একটা ভালো পর্যায়ে ছিল ইংল্যান্ড। বাটলারকে এখানে ফাইনালের নায়ক বলাই যেতে পারে।

বাটলার আউট হওয়ার পরই আবার ম্যাচের দখল নেয় নিউজিল্যান্ড। বেন স্টোকসের অতিমানবীয় ব্যাটিংয়ে শেষ শিরোপা জিতে নেয় ইংল্যান্ড। সুপার ওভারের শেষ বলে বাটলার যেভাবে স্নায়ুর চাপ ধরে রেখেছে স্টাম্প ভেঙেছে সেটা ২০১৬ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ধোনির কথা মনে করিয়ে দেয়। রুপকথার গল্পের মতোই ইংল্যান্ড এর ঘরে এবার বিশ্বকাপ এর মুকুটটা চলে গেল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *